Tuesday, May 24, 2022
HomeClass VII New Model Activity Task Class 7 Part 8 (All)-Allindjob

[2022] New Model Activity Task Class 7 Part 8 (All)-Allindjob

[2022] New Model Activity Task Class 7 Part 1 January 2022 (All)-Allindjob|model activity task class 7 Bengali| model activity task class 7 english| model activity task class 7 history All Subject. model activity task class 7 geography part 1

Model Activity Task Class 7 January 2022 Answer All Subject pdf

এখানে আমরা Class 7 Model Activity Task Combined / Part 8 এর সমস্ত প্রশ্ন ও উত্তর নিয়ে এসেছি । 

২০২১ এর এটাই সর্বশেষ অ্যাক্টিভিটি টাস্ক। এই অ্যাক্টিভিটি টাস্কে ৫০ নম্বরের প্রশ্ন দেওয়া রয়েছে যেগুলো তোমাদের সমাধান করে বিদ্যালয়ে জমা দিতে বলা হয়েছে । এর উপর ভিত্তি করেই সম্ভবত তোমরা পরবর্তী শ্রেণীতে উত্তীর্ণ হবে । সুতরাং, খুবই মন দিয়ে তোমরা নিচের প্রশ্নোত্তর গুলি লিখবে ।

[Final] New Model Activity Task Class 7 Part 8 (All)-Allindjob
[Final] New Model Activity Task Class 7 Part 8 (All)-Allindjob

Model Activity Task Class 7 Bengali Part 8-(মডেল এক্টিভিটি টাস্ক সপ্তম শ্রেণী Part 8)

Model Activity Task

Sub:- Bengali

১. ঠিক উত্তরটি বেছে নিয়ে লেখাে : ১  × ৫ = ৫ 

১.১ ‘পাগলা গণেশ’ গল্পে গণেশের বয়স 

(ক) একশাে বছর

(খ) দেড়শাে বছর 

(গ) একশাে পঁচাত্তর বছর 

(ঘ) দুশাে বছর 

উত্তর : (ঘ) দুশো বছর

১.২ কোকনদ’ হলাে 

(ক) শ্বেতপদ্ম

(খ) রক্তপদ্ম 

(গ) নীলপদ্ম

(ঘ) হলুদ পদ্ম 

উত্তর :  (খ) রক্তপদ্ম

১.৩ ‘পাখি সব করে রব রাতি পােহাইল’ – কবিতাটির রচয়িতা

(ক) আশরাফ সিদ্দিকী 

(খ) ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর

(গ) মদনমােহন তর্কালঙ্কার 

(ঘ) যােগীন্দ্রনাথ সরকার 

উত্তর :  (গ) মদনমোহন তর্কালঙ্কার

১.৪ শ্রদ্ধেয় রামানন্দ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে রামকিঙ্কর বেইজের পরিচয় হয় 

(ক) মেদিনীপুরে

(খ) বীরভূমে 

(গ) বাঁকুড়ায়

(ঘ) কলকাতায় 

উত্তর :  (গ) বাঁকুড়ায়

১.৫ খােকনের বাড়ির সামনেই ছিল একটি 

(ক) বটগাছ।

(খ) ইউক্যালিপটাস গাছ 

(গ) নারকেল গাছ 

(ঘ) বকুল গাছ 

উত্তর : (খ) ইউক্যালিপটাস গাছ

Model Activity Task Class 7 Bengali Part 8

২. খুব সংক্ষেপে নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও : ২  × ১০ = ২০ 

২.১ ‘তা আপনার কবিতা শুনছেই বা কে আর পড়ছেই বা কে?’ – একথার উত্তরে শ্রোত কী বলেছিলেন? 

উত্তর: উপরে উল্লেখিত লাইনটি শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের লেখা পাগলা গনেশ নামক গল্প থেকে নেওয়া হয়েছে। প্রশ্নে উল্লেখিত প্রশ্নটি পাগলা গণেশ কে করা হয়েছিল। 

এই প্রশ্নের উত্তরে শ্রোতা অর্থাৎ পাগলা গনেশ বলেন আকাশ শুনছে, বাতাস শুনছে এবং প্রকৃতি শুনছে। কাগজে লেখা সেই কবিতাগুলি ভাসিয়ে দিচ্ছে বাতাসে যদি কেউ কুড়িয়ে পায় আর সেটা করতে আগ্রহ প্রকাশ করলে তাহলে সে পড়বে।

২.২ My Native Land, Good night!” – উদ্ধৃতিটি কার রচনা থেকে নেওয়া হয়েছে ? 

উত্তর: উদ্দীপ্ত লাইনটি মাইকেল মধুসূদন রচিত বঙ্গভূমির প্রতি কবিতা থেকে নেওয়া হয়েছে।
My Native Land, Good night!’ – উক্তিটি বায়রনের লেখা।

২.৩ একুশের কবিতায় কোন্ কোন্ গানের সুরের প্রসঙ্গ রয়েছে? 

উত্তর: আশরাফ সিদ্দিকীর একুশের কবিতা নামক কবিতায় “পাখি সব করে রব” মাতৃভূমি বাংলাদেশ ভাটিয়ালি, জারী সারী এমনকি ছোটবেলায় মায়ের মুখে শোনার নানান গানের কলি প্রভৃতি সুরের প্রসঙ্গ রয়েছে।

২.৪ ‘অত বড়াে একজন শিল্পীর কাছে শিক্ষালাভ করেছি, আমার সৌভাগ্য। – কার স্মৃতিচারণায় কথক একথা বলেছেন? 

উত্তর: প্রশ্ন উল্লেখিত লাইনটি রামকিঙ্কর বেইজ রচিত আত্মকথা প্রবন্ধ থেকে নেওয়া হয়েছে।

২.৫ ‘খােকন অবাক হয়ে গেল। – কোন্ কথা শুনে খােকন অবাক হলাে?

উত্তর: লাইনটি বনফুল রচিত খোকনের প্রথম ছবি গল্প থেকে নেওয়া হয়েছে।

খোকনের বাবার একজন বন্ধুও বিখ্যাত চিত্রকর, তিনি লখনৌ শহরের থাকতেন। একদিন তিনি খোকন দের বাড়িতে এসেছিলেন এবং খোকনের ড্রইং খাতা গুলো দেখে বললেন খোকনের নিজের আঁকা ছবি তো নেই। সব নকল করা ছবি সে যদি ক্যামেরা দিয়ে ছবি তোলে তবে তা আরও নিখুঁত হবে। এই কথাগুলো শুনে খোকন অবাক হয়ে গেল নিজের আঁকা ছবি সে কি করে আঁকবে তা ভেবে।

২.৬ ‘আপনি আমার সঙ্গে ঠাট্টা করছেন। কোন্ কথার অবতারণাকে বক্তার ‘ঠাট্টা মনে হয়েছে? 

উত্তর: এই বিশাল হ্রদের জল যদি মেঘ হয়ে যায়, সেই মেঘ থেকে অন্য জায়গায় বৃষ্টি হবে। একসঙ্গে হঠাৎ বৃষ্টি বেড়ে গেলে পৃথিবীর দারুণ কোনো ক্ষতি হয়ে যাবে না । 

‘কী আর হবে। সাইবেরিয়ায় বড়োজোর এক ইঞ্চি বেশি বরফ জমবে? অসীমা হেসে ফেলে বলল, আপনি আমার সঙ্গে ঠাট্টা করছেন। এতবড়ো লেক কি শুকিয়ে ফেলা যায়?

২.৭ জেমস এইচ. কাজিনস কে ছিলেন? 

উত্তর : দক্ষিণ ভারত পরিক্রমায় বেরিয়ে ১৯১৯ সালে রবীন্দ্রনাথ গিয়েছিলেন মদনপল্লী সেখানকার থিয়সফিক্যাল কলেজ এর অধ্যক্ষ এবং রবীন্দ্রনাথের বন্ধু ছিলেন জেমস এইচ, কাজিস |

২.৮ ‘এ ছবি আমি পরেও দেখেছি। – কোন্ দৃশ্যবর্ণনা প্রসঙ্গে একথা এসেছে? 

উত্তর: মুখ ভর্তি পান নিয়ে পলায় বাঁধা হারমোনিয়াম বাজাতে বাজাতে কাজী নজরুল গাইছেন-এ ছবি আমি পরেও দেখেছি। এখানে এই দৃশ্যপটের কথা বলা হয়েছে।

২.৯ ‘তাদের রাজত্ব হের অক্ষুন্ন কেমন’ – কাদের রাজত্ব কেন অক্ষুন্ন রয়েছে বলে কবি মনে করেন? 

উত্তর: আলোচ্য কবিতায় কবি তাদের রাজত্ব হের অক্ষুন্ন কেমন বলতে যারা ক্ষমতা অর্থের জোরে বিভিন্ন স্মৃতিসৌধ বানিয়ে নিজেদের নাম অক্ষয় করে রাখতে চাই তাদের রাজত্ব-এর কথা বলেছেন। কিন্তু প্রকৃত অর্থে কালস্রোতে ভেসে যাওয়া জীবন-যৌবন ধনমানের মতো তাদের নির্মিত সৌধও একদিন ভেঙ্গে পড়বে, তাদের কথা কেউ মনে রাখবে না। তাই তাদের রাজত্বও অক্ষুন্ন থাকবে না ।

২.১০ ‘নীরব এখানে অমর কিষাণপাড়া”। – কিষাণপাড়াকে ‘অমর’ বলা হয়েছে কেন?

উত্তর: কিষাণপাড়ার প্রকৃতি এবং মানুষের জীবন শান্ত। কোনোরকম ব্যস্ততা সেখানে নেই নেই কোলাহল। দুর্ভিক্ষের পরেও কিষাণপাড়ায় মানুষ আবার কাজের মধ্য দিয়ে জেগে ওঠে। নিজ নিজ পেশায় কাজ করে চলে। দুর্ভিক্ষের হতাশা বা বিপন্নতা এখানে জীবনকে থামিয়ে দিতে পারে না। তাই কিষাণপাড়াকে কবি অমর বলেছেন।

৩. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর নিজের ভাষায় লেখাে : ৫  × ২ = ১০ 

৩.১ ‘জীবন হবে পদ্যময় – জীবন কীভাবে পদ্যময় হয়ে উঠবে বলে কবি মনে করেন? 

উত্তর: বিখ্যাত কবি অজিত দত্তের ছন্দে শুধু কান রাখো কবিতার কবি সমগ্র কবিতাতেই ছন্দের প্রতি মনোযোগ দেওয়ার কথা বলেছেন।কোভিদ মতে পরিবেশ অহরহই ঘটে চলেছে কোনো না কোনো ঘটনা। কোন টি প্রাকৃতিক আবার কোনোটি যান্ত্রিক। কিন্তু প্রতিটি ঘটনারই রয়েছে নির্দিষ্ট ছন্দ। সঠিকভাবে আমরা মনোনিবেশ করতে পারি না তাই আমাদের জীবনে প্রকৃত আনন্দ থাকে না। একাগ্রচিত্তে কান পেতে পরিবেশের ছন্দ বুঝতে পারলে কোভিদ মতে আমাদের জীবনটা আনন্দে পরিপূর্ণ অর্থাৎ পদ্যময় হয়ে উঠবে।

Model Activity Task Class 7

৩.২ ‘কুতুব মিনারের কথা’ রচনাংশ অনুসরণে কুতুব মিনারের নির্মাণ শৈলীর বিশিষ্টতা আলােচনা করাে। | 

উত্তর: কুতুবমিনার এর পূর্ববর্তী কালীন অন্য কোন মিনারে নিদর্শন শুধুই এদেশের নয় ইরান তুরানেও নেই। এটি সম্রাট কুতুবউদ্দিন আইবেক নির্মিত এক বিজয় স্তম্ভ। কুতুব পাঁচতলার নির্মাণ। প্রথম তলায় আছে বাঁশি ও কোণ এর নকশা। কুতুবে দ্বিতীয় তলায় আছে শুধু বাঁশি আর তৃতীয় তলায় শুধু কোনের নকশা। চতুর্থ ও পঞ্চম তলা তে কি ছিল তা জানা সম্ভব নয় কারণ তা বজ্রাঘাতে ভেঙে গিয়েছিল। মিনারটির গায়ে কারুকার্য অতি অদ্ভুত। সমস্ত মিনার থেকে কোমর বন্ধন এর মতো ঘিরে রয়েছে সারি সারি লতাপাতা ফুলের মালা এবং চক্রে নকশা আর দেয়ালে আরবি লেখার সারি। গোটা মিনারটির পরিকল্পনা মুসলমানদের আর যাবতীয় কারুকার্য রয়েছে হিন্দুদের। তাছাড়া কুতুব মিনারের মিনার এর গুলি অপ্রতিদ্বন্দ্বী। 

Model Activity Task Class 7 Bengali Part 8

৪. নির্দেশ অনুসারে উত্তর দাও : ১  × ৫ = ৫ 

৪.১ ‘খাটি দেশি শব্দ’ বলতে কী বােঝ? 

উত্তর: বাংলা ভাষাভাষীদের ভূখন্ডে অনেক আদিকাল থেকে যারা বাস করতো, সেইসব আদিবাসীদের ভাষায় যে সব শব্দ বাংলা ভাষায় গৃহীত হয়েছে, সে সব শব্দকে বলা হয় খাঁটি দেশি শব্দ।

৪.২ ‘তদ্ভব শব্দ’ কীভাবে গড়ে উঠেছে? 

উত্তর: বাংলা ভাষা গঠনের সময় প্রাকৃত বা অপভ্রংশ থেকে যে সব শব্দ পরিবর্তিত হয়ে বাংলা ভাষায় গৃহীত হয়েছিল, সেগুলোকেই বলা হয় তদ্ভব শব্দের মূল অবশ্যই সংস্কৃত ভাষায় থাকতে হবে। অর্থাৎ যে সব শব্দ সংস্কৃত থেকে পরিবর্তিত হয়ে প্রাকৃত বা অপভ্রংশে ব্যবহৃত হয়েছিলো, পরে আবার প্রাকৃত থেকে পরিবর্তিত হয়ে বাংলায় গৃহীত হয়েছে, সেগুলোকেই বলা হয় তদ্ভব শব্দ। এভাবেই তদ্ভব শব্দ গোরে উঠেছে।

৪.৩ অর্ধ-তৎসম বা ভগ্ন-তৎসম শব্দের দু’টি উদাহরণ দাও। 

উত্তর: 

কুৎসিত > কুচ্ছিত

গৃহিণী > গিন্নী

৪.৪ ‘বাঙালি পদবির ইংরেজি ধরনের উচ্চারণে হ্রস্বস্বরচিহ্ন হবে। – উদাহরণ দাও। 

উত্তর: 

গাঙ্গুলি (গাঙ্গুলী দীর্ঘকার হবে না)

চ্যাটার্জি ( চ্যাটার্জী দীর্ঘকার হবে না)

model activity task class 7 part 8 bangla

৪.৫ তদ্ভব ও অর্ধ-তৎসম শব্দের পার্থক্য একটি উদাহরণ দিয়ে বুঝিয়ে দাও।

উত্তর: বেশ কিছু সংস্কৃত শব্দ প্ৰকৃত ও অপভ্রংশের মধ্য দিয়ে পরিবর্তিত হয়ে বা রূপান্তরিত হয়ে বাংলা ভাষায় এসেছে তাদেরকে বলা হয় তদ্ভব শব্দ। যেমন হস্ত > হত্থ > হাত [ এখানে হস্ত সংস্কৃত শব্দ হত্থ প্রাকৃত শব্দ থেকে বাংলায় হাত হযেছে ]

অপরদিকে, অর্ধতৎসম মানে আধা সংস্কৃত। তৎসম শব্দ থেকে বিকৃত উচ্চারণের ফলে অর্ধতৎসম শব্দ উৎপন্ন হয়ে থাকে। অর্ধতৎসম শব্দের উদাহরণ : জােছনা , ছেরাদ্দ , গিন্নি , বােষ্টম, কুচ্ছিত ইত্যাদি (এ শব্দগুলাে যথাক্রমে সংস্কৃত জ্যোৎস্না, শ্রাদ্ধ, গৃহিণী, বৈষ্ণব, কুসিত শব্দ থেকে আগত)।

Model Activity Task Class 7 Bengali Part 8

৫. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও : ১  × ৫ = ৫ 

৫.১ ‘ঋ, র, য এই তিন বর্ণের পরের শব্দের মধ্যে ন >ণ হয়। প্রতিক্ষেত্রে একটি করে উদাহরণ দাও। 

উত্তর: ঋণ, বর্ণ, স্বর্ণ, তুণ, জীর্ণ, শীর্ণ প্রভৃতি|

৫.২ ‘পিতৃ ও মাতৃ শব্দের সঙ্গে স্বস্ শব্দের যােগ হলে স্বসৃ শব্দের প্রথম স্ হয় য’। – উদাহরণ দাও। 

উত্তর: মাতুঃস্বসা বা মাতৃস্বসা [ মাতু:+ স্বসৃ, মাতৃ + স্বসৃ] এর বাংলা অর্থ হলো মায়ের ভগিনি, বা তত্সহানীয়া নারী, মাসি।

পিতৃস্বসা[পিতৃ+ স্বসৃ]- এর বাংলা অর্থ হলো- বাবার ভাই- কাকু, জেঠু।

৫.৩ ভাবপ্রকাশক ধ্বন্যাত্মক শব্দের প্রয়ােগে একটি বাক্য রচনা করাে। 

উত্তর: রসগোল্লার রস লেগে হাতটা চট চট করছে।

৫.৪ শূন্যস্থান পূরণ করাে : ___________ > তিত > তেতাে।

উত্তর: তিক্ত > তিত > তেতাে ।

৫.৫ বানান সংশােধন করাে : পূরষ্কার। 

উত্তর: পূরষ্কার > পুরস্কার ।

model activity task class 7 part 8 bangla

৬. পত্র রচনা করাে : ৫

তােমাদের অঞ্চলে একটি পাঠাগার স্থাপনের অনুরােধ জানিয়ে ব্লক উন্নয়ন আধিকারিকের কাছে একটি আবেদনপত্র লেখাে।

উত্তর: 

মাননীয় / মাননীয়া,

সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক

গ্রামঃ (গ্রামের নাম)

পোস্টঃ  ( পোস্ট অফিসের নাম )

ব্লকঃ (ব্লকের নাম )

জেলাঃ (জেলার নাম )

বিষয়ঃ (গ্রামের নাম ) পাড়ায় একটি পাঠাগার স্থাপনের জন্য আবেদন।

মহাশয় / মহাশয়া, 

               আপনার নিকট বিনীত নিবেদন এই যে , আমাদের (এখানে তোমাদের গ্রামের নাম লিখবে) পাড়ায় মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীসহ জনসংখ্যা প্রায় বারো হাজারের ওপরে। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় এই যে, এখানে কোনো পাঠাগার নেই। শিক্ষার্থীদের জ্ঞানচর্চা, মানসিক গঠন ও সৃজনশীল চেতনা বিকাশে একটি পাঠাগার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাছাড়া এলাকায় দৈনিক পত্রিকা ও সাময়িক পত্র-পত্রিকা পড়ারও কোনো ব্যবস্থা নেই। এখানে একটি পাঠাগার হলে তরুণরাও তাদের অলস সময়কে জ্ঞানচর্চার মতো প্রয়োজনীয় কাজে ব্যয় করতে পারবে। 

     অতএব, (এগ্রামের নাম ) পাড়ায় সকল বয়সের জনসাধারনের উপকারের কথা বিবেচনা করে অতিসত্ত্বর এখানে একটি পাঠাগার স্থাপনের ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আপনাকে বিশেষভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।

                              ধন্যবাদান্তে

                   গ্রামবাসীদের পক্ষ থেকে

                      (তোমাদের নাম)

                             স্থানঃ

                            তারিখঃ

Model Activity Task Class 7

[Final] Model Activity Task Class 7 English Part 8

[Final] Model Activity Task Class 7 English Part 8

Sub:- English

1. Read the following passage and answer the questions given below: 

We would find a hammer for him, and then he would have lost sight of the mark he had made on the wall, where the nail was to go in. Each of us had to get up on the chair beside him, and see if we could find it. We would each discover it in a new place, and he would call us all fools. 

Trying to reach a point three inches beyond what was possible for him to reach, the string would slip, and down he would slide on to the piano. 

A. Rearrange the following sentences: 1 × 5 = 5 

i. Each of us would discover a new place. 

Ans: 4

ii. The hammer was found. 

Ans: 1

iii. He fell on to the piano. 

Ans: 5

iv. Everyone has to get up on the chair beside him. 

Ans: 3

v. Uncle Podger would lose sight of the mark. 

Ans: 2

B. Answer the following questions: 2 × 3 = 6 

(a) Why was it necessary for each of them to get up on the chair beside him? 

Ans: It was necessary for each of them to get up on the chair beside him to find the mark that uncle podger had made on the wall

(b) Why did Uncle consider each of them to be fools? 

Ans: Uncle considered each of them to be fools because they would discover the mark in different places.

(c) How did Uncle Podger fall on the piano? 

Ans: Traying to reach a point three inches beyond what was possible for him to reach, the string slipped and uncle podger fell on the piano.

2. Read the passage carefully and answer the questions that follow: 

You know of course that our earth is very, very old millions and millions of years old. And for a long long time there were no men or women living in it, before the men came there were only animals, and before the animals there was a time when no kind of life existed on the earth. It is difficult to imagine this world of ours which is so full today of all kinds of animals and men, to be without them. But scientists and those who have studied and thought a great a deal about these matters tell us that there was a time when the earth was too hot for any living being to live on it. 

Model Activity Task Class 7 English Part 8

Answer the following questions in complete sentences: 2 × 3 = 6 

(i) How old is the earth? 

Ans: The Earth millions and millions of years old.

(ii) Describe the earth before man existed. 

Ans: Before the men came there were only animals, and before the animals there was a time when no kind of life existed on the earth.

(iii) Why was there no life on earth? 

Ans: there was a time when the earth was too hot for any living being to live on it.

Model Activity Task Class 7 English Part 8

SECTION -B

GRAMMAR AND VOCABULARY 

3. Underline the nominal compounds in the following sentences: 1 × 4 = 4 

(a) Since it is raining, you should wear the raincoat. 

Ans: Since it is raining, you should wear the raincoat.

(b) Do you know how to use the washing machine? 

Ans: Do you know how to use the washing machine.

(c) Never waste drinking water. 

Ans: Never waste drinking water.

(d) There is not a single oil pump in our area. 

Ans: There is not a single oil pump in our area. 

Model Activity Task Class 7 English Part 8

4. Select the correct homophone from the brackets and fill in the blanks: 1 × 4 = 4 

(a) Akbar, the great Mughal emperor, _____________ for forty-nine years. (reined/reigned) 

Ans: reigned

(b) Anamika loves to have_____________. (curd/card) 

Ans: curd

(c) Sania is too ____________ to move out of doors. (week/weak) 

Ans: weak

(d) Do you like to watch the TV _____________? (cereals/serials) 

Ans: serials

Model Activity Task Class 7 English Part 8

5. Do as directed: 1 × 5 = 5 

(i) The cheetah is the fastest animal. (Use Positive degree of the adjective) 

Ans: No other animal is as fast as the cheetah.

(ii) Very few queens were as powerful as Elizabeth I. (Use Superlative degree) 

Ans: Elizabeth was one of the most powerful queens.

(iii) No other girl of our school is so pretty as Tania. (Use Comparative degree) 

Ans: Tania is prettier than any other girl of our school.

(iv) His application was rejected. (Replace the underlined word with its antonym) 

Ans: His application was accepted.

(v) Don’t eat the rotten apples. (Identify the participial adjective) 

Ans: Don’t eat the rotten apples.

6. Match column A with column B: 1 × 6 = 6 

 AB
(i)PhilatelistAn artist who makes sculptors
(ii)AtheistOne who has the negative outlook in life
(iii)SculptorA place where bees are kept
(iv)ApiaryCertain to happen
(v)Pessimist One who collects stamps
(vi)InevitableOne who does not believe in the existence of God

Ans: 

 AB
(i)PhilatelistOne who collects stamps
(ii)AtheistOne who does not believe in the existence of God
(iii)SculptorAn artist who makes sculptors
(iv)ApiaryA place where bees are kept
(v)Pessimist One who has the negative outlook in life
(vi)InevitableCertain to happen

C: WRITING 

7. Suppose your cousin has never been to your village. Write a letter (in about 70 words) to him/her describing your village and inviting him/her to visit your village. 7 

Ans: 

Dear Raju,

How are you? I hope that you are well. I am also fine. Some days ago, you want to know about our village. Now I am going to describe our village. you know that the name of our village is Kashipur. Our village stands by the river Ganga. It is three kilometers long and half km wide. There are about five thousand people in our village. Most of the people of our village are farmers. There are two high schools, three primary schools, One bank, One Bazar, One post office in our village. The people of our village are honest and living peacefully. I want you to come to our village as soon as possible. We shall enjoy ourselves together. No more today.

Your’s ever

Raj

8. Write the summary of the given passage: 7 

The constable came. He took me by the hand and pushed me out. My luggage was also taken out. I refused to go to the other compartment and the train steamed away. I went and sat in the waiting room, keeping my hand-bag with me, leaving the other luggage where it was. The railway authorities had taken charge of it.

Ans: The constable came to push the author out with his luggage. Unwilling to go to the other compartment, he went to the waiting room leaving the luggage at the railway authority’s custody.

Model Activity Task Class 7

[Part 8] Class 7 Model Activity Task Math Part 8-সপ্তম শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

[Part 8] Class 7 Model Activity Task Math Part 8-সপ্তম শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

Model Activity Task

Sub:- Math

বিষয়:- গণিত 

নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর লেখাে : (Model activity task class 7 november)

1. বহুমুখী উত্তরধর্মী প্রশ্ন (MCQ) 1 × 8 = 8

(i) কোনটি ত্রিভুজের সর্বসমতার শর্ত নয় —

(a) বাহু-বাহু-বাহু 

(b) বাহু-কোণ-বাহু

(c) কোণ-কোণ-বাহু

(d) কোণ-কোণ-কোণ

উত্তর: (d) কোণ-কোণ-কোণ

(ii) 4/49 বর্গসেমি. ক্ষেত্রফল বিশিষ্ট বর্গক্ষেত্রের একটি বাহুর দৈর্ঘ্য হবে

(a) 

(b) 2/7 সেমি. 

(c) 2 সেমি. 

(d) 7 সেমি.

উত্তর: (b) 2/7 সেমি. 

(iii) 1.69 -এর বর্গমূল হলাে

(a) 13

(b) 1.3 

(c) 0.13 

(d) 13.03

উত্তর: (b) 1.3

(iv) xy = 

(a) (x+y)² – (x-y)²

(b) (x+y)² + (x-y)²

(c) latex^{2}+(\frac{x-y}{2})^{2}[/latex]

(d) latex^{2}+(\frac{x-y}{2})^{2}[/latex]

উত্তর:  (c) latex^{2}+(\frac{x-y}{2})^{2}[/latex]

(v) যখন কোনাে ট্রেন কোনাে সেতু অতিক্রম করে তখন ট্রেনটিকে অতিক্রম করতে হবে 

(a) ট্রেনটির নিজের দৈর্ঘ্য

(b) সেতুর দৈর্ঘ্য 

(c) ট্রেনটির নিজের দৈর্ঘ্য + সেতুর দৈর্ঘ্য

(d) সেতুর দৈর্ঘ্য – ট্রেনটির নিজের দৈর্ঘ্য

উত্তর: (c) ট্রেনটির নিজের দৈর্ঘ্য + সেতুর দৈর্ঘ্য

(vi) ত্রিভুজাকৃতি ক্ষেত্রের ক্ষেত্রফল = 

(a) (বাহুর দৈর্ঘ্য)²

(b) বাহুগুলির দৈর্ঘ্যের সমষ্টি 

(c) 1/2 (ভূমির দৈর্ঘ্য + উচ্চতা)

(d) 1/2 ভূমির দৈর্ঘ্য × উচ্চতা 

উত্তর: (d) 1/2 ভূমির দৈর্ঘ্য x উচ্চতা 

(vii) a² – b² = 

(a) (a+b)²

(b) (a–b)² 

(c) (a+b) (a–b)

(d) (a+b)² + (a–b)²

উত্তর: (c) (a+b) (a–b)

(viii)

রাস্তাসহ জমির দৈর্ঘ্য এবং রাস্তা বাদে জমির প্রস্থ হলাে যথাক্রমে

(a) 23 মি., 21 মি. 

(b) 29 মি., 21 মি. 

(c) 26 মি., 21 মি.

(d) 26 মি., 15 মি.

উত্তর: (d) 26 মি., 15 মি.

Model Activity Task Class 7

2. সত্য/মিথ্যা (T/F) লেখাে : 1 × 8 = 8

(i) (x + y)² -এর সূত্র থেকে (x – y)² -এর সূত্র নির্ণয় করতে y-এর পরিবর্তে (–y) লিখতে হবে। 

উত্তর: সত্য

(ii) (4 – x) (x – 4) = 16 – x²

উত্তর: মিথ্যা

(iii)

চিত্রে, ∠1 ও ∠2 পরস্পর অনুরূপ কোণ।

উত্তর: মিথ্যা

(iv)

চিত্রে, বিষমবাহু Δ ABC-এর একটি উচ্চতা AD। AD ত্রিভুজটির একটি মধ্যমা।

উত্তর: মিথ্যা

(v) দুটি স্তম্ভ চিত্রকে পাশাপাশি এঁকে দুটি তথ্য সহজে তুলনা করার জন্য যে চিত্র আঁকা হয় সেই চিত্রটি হলাে দ্বিস্তম্ভ লেখ।

উত্তর: সত্য

(vi) প্রথম ট্রেনের গতিবেগ x কিমি./ঘন্টা এবং দ্বিতীয় ট্রেনের গতিবেগ y কিমি./ঘন্টা। ট্রেন দুটি পরস্পর বিপরীত দিকে চললে 1 ঘন্টায় মােট যাবে (x – y) কিমি.।

উত্তর: মিথ্যা

(vii)

চিত্রে, ∠1 ও ∠2, কোণ জোড়াকে একান্তর কোণ বলা হয়।

উত্তর: মিথ্যা

(viii) x-এর যেকোনাে মানের জন্য, (x+5) × (x+3) = x²+8x+15 -এর সমান চিহ্নের দুপাশে মান সমান হয়। তাই এটি একটি অভেদ। 

উত্তর: সত্য

3. সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন : 2 × 6 =12 

(i) গণিতের ভাষায় সমস্যাটি হলাে,
গতিবেগ একই থাকলে সময় ও দূরত্বের সমানুপাতি সম্পর্কের সাহায্যে x-এর মান নির্ণয় করাে। 

Model Activity Task Class 7

উত্তর: 

(ii)

তালিকাটির সাহায্যে একটি দ্বিস্তম্ভ লেখচিত্র অঙ্কন করাে। 

উত্তর: 

Class 7 Model Activity Task Math Part 8 Combined

(iii) m + 1/m = – P হলে, দেখাও যে, m² + 1/m² = P² – 2 

উত্তর: 

(iv) \sqrt{2} -এর দুই দশমিক স্থান, পর্যন্ত আসন্ন মান নির্ণয় করাে। 

উত্তর: 

(v) ত্রিভুজের সর্বসমতার শর্তগুলি লেখাে।

উত্তর: ত্রিভুজের সর্বসমতার শর্তগুলি হলো – 

১) বাহু – বাহু – বাহু   অথবা, S – S – S

২) বাহু – কোণ – বাহু   অথবা, S – A – S

৩) কোণ – কোণ – বাহু   অথবা, A – A – S

৪) সমকোণ – অতিভুজ – বাহু   অথবা, R – H – S

(vi) x+y=5 এবং x–y=1 হলে, 8xy (x²+y²)-এর মান নির্ণয় করাে। 

উত্তর: x + y = 5 এবং x–y=1

∴ 4xy = (x+y)² – (x-y)²

= (5)² – (1)²

= 25 – 1

= 24

∴ 2(x²+y²) = (x+y)² + (x-y)²

= (5)² + (1)²

= 25 + 1

= 26

 8xy(x²+y²)

= 4xy.2(x²+y²)

= 24.26

= 624 (Answer)

Class 7 Model Activity Task Math Part 8 Combined

4. (i) সংখ্যারেখায় (6) + (–2)-কে দেখাও। 

উত্তর: 

(ii) প্রথম বীজগাণিতিক সংখ্যামালাকে দ্বিতীয় বীজগাণিতিক সংখ্যামালা দিয়ে ভাগ করে ভাগফল নির্ণয় করাে : 

14x⁴y⁶ – 21x³y⁵, – 7x³y⁴, যেখানে x ≠ 0, y ≠ 0

উত্তর: 

5. (i) ABC একটি ত্রিভুজ আঁকো যার BC = 5.5 সেমি, ∠ABC = 60° ও ∠ACB = 30° ।

উত্তর: 

(ii) করিমচাচার আয়তক্ষেত্রাকার জমির দৈর্ঘ্য প্রস্থের 2 গুণ এবং এই জমির ক্ষেত্রফল 578 বর্গমিটার। করিমচাচার জমিটির দৈর্ঘ্য, প্রস্থ ও পরিসীমা নির্ণয় করাে।

উত্তর: 

(iii) 90 মিটার লম্বা একটি রেলগাড়ি একটি স্তম্ভকে 25 সেকেন্ডে অতিক্রম করলাে। রেলগাড়ির গতিবেগ ঘন্টায় কত কিলােমিটার নির্ণয় করাে।

উত্তর: 

Model Activity Task Class 7

Class 7 Model Activity Task History Part 8-মডেল এক্টিভিটি টাস্ক সপ্তম শ্রেণী Part 8

Class 7 Model Activity Task History Part 8-মডেল এক্টিভিটি টাস্ক সপ্তম শ্রেণী Part 8

Model Activity Task (মডেল এক্টিভিটি টাস্ক) 

Sub:- History (ইতিহাস)

১. ‘ক’ স্তম্ভের সাথে ‘খ’ স্তম্ভ মেলাও :

ক-স্তম্ভখ-স্তম্ভ
১.১ খলিফার অনুমােদন(ক) গিয়াসউদ্দিন বলবন 
১.২ সিজদা ও পাইবস(খ) কৃষ্ণদেব রায়
১.৩ বাজারদর নিয়ন্ত্রণ(গ) ইলতুৎমিশ
১.৪ আমুক্তমাল্যদ(ঘ) আলাউদ্দিন খলজি

উত্তর:

ক-স্তম্ভখ-স্তম্ভ
১.১ খলিফার অনুমােদন(গ) ইলতুৎমিশ
১.২ সিজদা ও পাইবস(ক) গিয়াসউদ্দিন বলবন 
১.৩ বাজারদর নিয়ন্ত্রণ(ঘ) আলাউদ্দিন খলজি
১.৪ আমুক্তমাল্যদ(খ) কৃষ্ণদেব রায়
class 7 model activity task history part 8 combined

২. বেমানান শব্দটির নিচে দাগ দাও :

২.১ বিজয়ালয়, দন্তিদুর্গ, প্রথম রাজরাজ, প্রথম রাজেন্দ্র 

উত্তর: দন্তিদুর্গ 

২.২ বরেন্দ্র, হরিকেল, কনৌজ, গৌড় 

উত্তর: কনৌজ

২.৩ হলায়ুধ, জয়দেব, গােবর্ধন, উমাপতিধর 

উত্তর: গােবর্ধন

২.৪ প্রতাপাদিত্য, কেদার রায়, ইশা খান, বৈরম খান 

উত্তর: বৈরম খান

৩. শূন্যস্থান পূরণ করাে : 

৩.১ বন্দেগান-ইচিহলগানির সদস্য ছিলেন সুলতান ___________ ।

উত্তর: গিয়াসউদ্দিন বলবন ।

৩.২ বাংলার প্রথম স্বাধীন সুলতান ছিলেন ___________ । 

উত্তর: সুলতান শামসউদ্দিন ইলিয়াস শাহ ।

৩.৩ পাের্তুগিজ পর্যটক ___________ বিজয়নগর পরিভ্রমন করেন। 

উত্তর: পেজ ।

৩.৪ বিজয়নগর পরাজিত হয়েছিল ___________ যুদ্ধে। 

উত্তর: ১৫৬৫ খ্রি: তালিকোটার ।

class 7 model activity task history part 8 combined

৪.. সত্য বা মিথ্যা নির্ণয় করাে :

৪.১ ‘দাগ’ ও ‘হুলিয়া’ ব্যবস্থা চালু রাখেন শেরশাহ। 

উত্তর: সত্য 

৪.২ ১৫৭৬ খ্রিস্টাব্দে হলদিঘাটির যুদ্ধে আকবর রানা প্রতাপকে পরাজিত করেছিলেন। 

উত্তর: সত্য 

৪.৩ মনসবদারি ও জায়গিরদারি ব্যবস্থা বংশানুক্রমিক ছিল।

উত্তর: মিথ্যা 

৪.৪ রাজিয়া তার মুদ্রায় নিজেকে ‘সুলতান’ বলে দাবি করেছেন। 

উত্তর: সত্য 

class 7 model activity task history part 8 combined

৫. দুই-তিনটি বাক্যে উত্তর দাও :

৫.১ ‘দীন-ই ইলাহি’ কী?

উত্তর: খ্রিস্টীয় ১৫৭০ – এর দশকে মুঘল সম্রাট আকবর ফতেপুর, সিকরিতে নানান ধর্মের গুরুদের ডেকে ধর্মীয় নানা বিষয়ে আলােচনা করতেন। এই সব আলােচনার ভিত্তিতে তিনি দীন – ই ইলাহি’ নামে এক নতুন – মতাদর্শ চালু করেন ফারসি শব্দ ‘দীন – ই – ইলাহি ‘-র অর্থ হলাে ঈশ্বরের প্রতি বিশ্বাস, আবুল ফজল ও বাউনি, এই ধর্মমতকে তৌহিদ – ই- ইলাহি বা স্বগীয় একেশ্বরবাদ’ বলে উল্লেখ করেছেন।

আকবর বিভিন্ন ধর্ম থেকে নিজের পছন্দ মতাে কিছু কিছু বৈশিষ্ট্য | বেছে নিয়ে তার ওপর ভিত্তি কবে দীন-ই ইলাহি তৈবি কবেন। তিনি নিজের সভাসদদের মধ্যে এর প্রচলন করেছিলেন। বেশ কিছু অনুষ্ঠান ও রীতিনীতির মধ্যে দিয়ে তারা বাদশাহের প্রতি | সম্পূর্ণ অনুগত থাকার শপথ নিত। এই হলাে দীন-ই-ইলাহি।

৫.২ ‘মনসব কী? 

উত্তর: আকবর সামরিক ব্যবস্থায় একটি গুরুত্বপূর্ণ সংযােজন করেন। সেটি ছিল তার মনসবদারি ব্যাবস্থা। আকবরের শাসনব্যবস্থায় প্রশাসনিক পদগুলিকে বলা হতাে মনসব।

৬. চার-পাঁচটি বাক্যে উত্তর দাও :

৬.১ পাল-সেন যুগে কেমন ভাবে কর আদায় করা হত? 

উত্তর: 

ভূমিকা : পাল ও সেনযুগে রাজারা বিভিন্ন ধরনের কর সংগ্রহ করতেন।

1. কৃষি কর : রাজারা উৎপন্ন ফসলের এক-ষষ্ঠাংশ (১/৬ ভাগ)। কৃষকদের কাছ থেকে কর নিতেন। তাঁরা নিজেদের ভােগের জন্য ফুল, ফল, কাঠ ও প্রসাদের কাছ থেকে কর হিসাবে আদায় করতেন।

2. বাণিজ্য কর : বণিকরা তাদের ব্যাবসাবাণিজ্য করার জন্য বাসাকে কর দিত। 

3. অন্যান্য কর : এছাড়াও প্রজারা নিজেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য রাজাকে কর দিত। সমগ্র গ্রামের উপবেও কর দিতে হতাে গ্রামবাসীদের। হাট ও খেয়াঘাটের , উপবে কর চাপানাে

হতো৷

৬.২ সেন রাজারা কি সাহিত্যের পৃষ্ঠপােষক ছিলেন? 

উত্তর: বাংলার সেন বংশের রাজা লক্ষণ সেন ছিলেন সাহিত্যানুরাগী। অনেক কবি ও সাহিত্যিক তাঁর রাজসভা অলংকৃত করতেন। তাঁদের মধ্যে উল্লেখযােগ্য ছিলেন – 

(১) কবি জয়দেব: লক্ষণ সেনের সভাপতি জয়দেব ছিলেন বিখ্যাত সাহিত্যিক। তাঁর রচিত কাব্যের নাম হলাে “গীতগােবিন্দ’। এই কাব্যের বিষয় ছিল রাধাকৃষ্ণের প্রেমের কাহিনি। 

(২) ধােয়ী : তাঁর রাজসভার আর এক কবি ধােয়ী লিখেছিলেন ‘পবনদূত” কাব্য। 

(৩) পঞ্চরত্ন : জয়দেব ও ধােয়ীসহ আরও তিনজন গােবর্ধন, উনাপতি ধর এবং শরণ লক্ষণ সেনের সভা অলংকৃত করেছিলেন। এই পাঁচজন কবিকে একত্রে “পঞ্চব” বলা হয়।

এছাড়াও লক্ষণ সেনের মন্ত্রী হলায়ুধ বৈদিক নিয়ম বিষ  “ব্রাহ্মণ সর্বস্ব” নামে একটি বই লিখেছিলেন। লক্ষণ সেন নিজেও পিতার অসমাপ্ত “অদ্ভুতসাগর” বইটি সমাপ্ত করেন।

৬.৩ ইকতা ব্যবস্থা কী? 

উত্তর: নির্দিষ্ট অঞ্চলের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মচারীরা সুলতানের নির্দেশে রাজস্ব আদায় করার অধিকার পেতেন। পরবর্তীকালে সাম্রাজ্যের আয়তন বেড়ে গেলে সুলতানরা যে সব রাজ্য জয় করতেন, সেই | রাজ্যগুলির দায়িত্ব এক একজন সামরিক নেতার উপর দিতেন। এই রাজ্যগুলিকে এক একটি প্রদেশে ধরে নেওয়া হত, এগুলিকে বলা হত ইকতা৷ ইকতার দায়িত্বে যিনি থাকতেন তাকে বলা হত ইকতাদার বা ওয়ালি ।

class 7 model activity task history part 8 combined
৬.৪ খলজি বিপ্লব বলতে কী বােঝ?

উত্তর: ১২৯০ খ্রিঃ হিন্দুস্থানি মুসলিমদের নেতা ও সাম্রাজ্যের প্রধান সেনাপতি জালালউদ্দিন খলজি বলবনের বংশধর অসুস্থ কায়কোবাদ ও শিশু কায়ুমার্সকে হত্যা করে দিল্লির সুলতান হন| এই ঘটনাকে বলা হয় “খলজি বিপ্লব’| এর ফলে দিল্লিতে তুর্কি অভিজাতদের ক্ষমতা চলে যায়| তার বদলে খলজি তুর্কি ও হিন্দুস্তানিদের ক্ষমতা বেড়ে গিয়েছিল।

৬.৫ ‘দাক্ষিণাত্য ক্ষত’ বলতে কী বােঝাে?

উত্তর: খ্রিস্টীয় সপ্তদশ শতকে ঔরঙ্গজেবের সময়ে মারাঠাদের

শক্তি অনেক বেড়ে গিয়েছিল। ঔরঙ্গজেব ভেবেছিলেন যে দক্ষিণী 1 রাজ্যগুলিকে জয় করতে পারলে সেখানে থেকে অনেক বেশি রাজস্ব আদায় করা যাবে। তার সঙ্গে মারাঠাদের দমন করাও সহজ হবে। ঔরঙ্গজেবের আমলে মুঘলরা বিজাপুর ও গোলাকোন্ডা দখল করেছিল। মুঘল সাম্রাজ্যের আয়তন এত বড়াে আগে। কখনাে হয়নি। কিন্তু বাদশাহ যা ভেবেছিলেন তা হলাে না। তার বদলে বহু বছরের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে মুঘলদের অনেক আর্থিক ক্ষতি | হলাে। দাক্ষিণাত্য যুদ্ধের এই ক্ষত আর সারলাে না। মারাঠা। নেতা শিবাজীকেও স্বাধীন রাজা বলে মেনে নিতে হলাে।

ঔরঙ্গন্ধোন পেষে দা পঁচিশ বছর ধবে যুদ্ধ কবে ঔরঙ্গজেব শেষে | দাক্ষিণাত্যেই মারা গেলেন (১৭০৭ খ্রিঃ)

৭. আট-দশটি বাক্যে উত্তর দাও : 

৭.১ বখতিয়ার খলজির বাংলা আক্রমণের পর বাংলাতে কি কি পরিবর্তন ঘটেছিল? 

উত্তর:  বখতিয়ার খলজি বাংলা আক্রমন করলে লক্ষণ সেন কোন প্রতিবােধ না করে পূর্ববঙ্গে চলে যান। ফলে বখতিয়ার খলজি সহজে বাংলা দখল করে নেন। তিনি লক্ষণাবতী অধিকার করে নিজের রাজধানী স্থাপন করেন। এই শহরকে সমকালীন ঐতিহাসিকরা লখনৌতি বলেছেন। এরপর বখতিয়ার খলজি তার রাজ্যকে কয়েকটি ভাগে ভাগ করেন। প্রত্যেক ভাগের জন্য একজন করে শাসনকর্তা নিযুক্ত করেন। এরা ছিলেন তার সেনাপতি। তিনি মসজিদ, মাদ্রাসা এবং সুফি সাধকদের আস্তানা তৈরি করেন। তার আমলে রাজ্যের সীমানা উত্তরে দিনাজপুর জেলার দেবকোট থেকে রংপুর, দক্ষিনে পাদ্মানদী, পূর্বে তিস্তা ও করতােয়া নদী, এদের পশ্চিমে বিহার পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল।।

৭.২ কৃষ্ণদেব রায়কে কেন বিজয়নগরের শ্রেষ্ঠ শাসক বলা হয়? 

উত্তর: কৃষ্ণদেব রায় ছিলেন বিজয়নগরেব রাজ্যের বিখ্যাত শাসক। তার রাজত্বকালে বিজয়নগরের গৌরব সবথেকে বেড়েছিল। সে সময়ে সাম্রাজ্যের সীমা বেড়েছিল। অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশিক বাণিজ্যের প্রসার হয়েছিল। এছাড়াও শিল্প-সাহিত্য, সংগীত এবং দর্শনশাস্ত্রের উন্নতি তার সময় লক্ষ্য করা যায়। কৃষ্ণদেব রায় নিজেও একজন সাহিত্যিক ছিলেন। তেলেগু ভাষায় লেখা আমুক্তমাল্যদ গ্রন্থে তিনি রাজার কর্তব্যের কথা লিখেছেন। রাজা কৃষ্ণদেব রায় ছিলেন বিষ্ণুর উপাসক। কিন্তু তা সত্বেও খ্রিস্টান মুসলমান বৌদ্ধ শিখ জৈন প্রভৃতি বিভিন্ন ধর্মাবলম্বী মানুষেরাও স্বাধীনভাবে তাদের ধর্মাচরণ পালন করতে পারত। | বিজয়নগরের রাজাদের মধ্যে তিনি সর্বাপেক্ষা পন্ডিত এবং সর্বোত্তম একজন মহান শাসক এবং সুবিচারক সাহসী সর্বগুনম্বিত | ছিলেন, একথা বলেছিলেন পর্তুগিজ পর্যটক পেজ। এই সমস্ত কারণগুলাের জন্যই কৃষ্ণদেব রায়কে বিজয় নগরের শ্রেষ্ঠ শাসক বলা হয়।

৭.৩ শেরশাহের যে-কোনাে দুটি প্রশাসনিক সংস্কার সম্পর্কে সংক্ষেপে লেখাে।

উত্তর: 

ভূমিকা – সম্রাট শের শাহ ছিলেন বিজেতা হিসেবে শ্রেষ্ঠ, আর শাসক হিসেবে শ্রেষ্ঠতম। দিল্লির শাসক হিসেবে তিনি মাত্র ৫ বছর (১৫৪০-১৫৪৫ খ্রি.) রাজত্ব করেছিলেন। কিন্তু এই অল্প সময়ের মধ্যেই শাসনব্যবস্থার সর্বত্র তিনি কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছিলেন। তাঁর শাসনব্যবস্থার মধ্যে অনেক মানবিক চিন্তার পরিচয় পাওয়া যায়৷ 

ভূমিরাজস্ব : ভূমিরাজস্ব ব্যবস্থার ক্ষেত্রে শের শাহ অনন্য প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন। তিনি পাট্টা’ ও ‘কবুলিয়ত’ ব্যবস্থা চালু করেন। শের শাহ কৃষককে কৃষকের নাম, জমিতে কৃষকের অধিকার এবং তাকে কত রাজস্ব দিতে হবে তা লিখে যে দলিল দিতেন, তাকে পাট্টা বলা হত। পাট্টাপ্রাপ্ত কৃষকরা রাজস্ব দেওয়ার কথা স্বীকার বা কবুল করে সরকারকে যে দলিল সই করে দিত, তাকে কবুলিয়ত বলা হত।

যােগাযােগ ব্যবস্থা : যােগাযােগ ব্যবস্থার ক্ষেত্রে সুদীর্ঘ ও প্রশস্ত রাজপথ নির্মাণ শের শাহের অন্যতম শ্রেষ্ঠ কীর্তি। তিনি পূর্ববঙ্গের সােনারগাঁ থেকে পেশােয়ার পর্যন্ত ১৪০০ মাইল দীর্ঘ পথ নির্মাণ করেন, যা সড়ক-ই আজমস’ বা গ্র্যান্ড ট্রাঙ্ক রােড বা জি টি রােড নামে পরিচিত। তিনি আগ্রা থেকে বুবহানপুর ও আগ্রা থেকে যােধপুর পর্যন্ত রাস্তা নির্মাণ করেন। তিনি পথিক ও বণিকদের সুবিধার জন্য রাস্তার ধারে ধারে অনেক সবাইখানা নির্মাণ করেছিলেন। তিনিই প্রথম ঘােড়ার পিঠে ডাক আদানপ্রদানের ব্যবস্থা করেন।

Class 7 Model Activity Task Geography Part 8-মডেল এক্টিভিটি টাস্ক সপ্তম শ্রেণী Part 8

Class 7 Model Activity Task Geography Part 8-মডেল এক্টিভিটি টাস্ক সপ্তম শ্রেণী Part 8

Class 7 (সপ্তম শ্রেণী)

Sub:- Geography

১. বিকল্পগুলি থেকে ঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে লেখাে : ১ × ৯ = ৯

১.১ সূর্যের উত্তরায়নের সময়কাল –

ক) ২১ শে জুন থেকে ২২ শে ডিসেম্বর 

খ) ২৩ শে সেপ্টেম্বর থেকে ২১ শে মার্চ 

গ) ২২ শে ডিসেম্বর থেকে ২১ শে জুন

ঘ) ২১ শে মার্চ থেকে ২৩ শে সেপ্টেম্বর 

উত্তর: গ) ২২ শে ডিসেম্বর থেকে ২১ শে জুন

১.২ কোনাে মানচিত্রে সমচাপরেখাগুলি খুব কাছাকাছি অবস্থান করলে সেখানে –

ক) বায়ুর চাপ বেশি হয় 

খ) বায়ুর চাপের পার্থক্য বেশি হয় 

গ) বায়ুর চাপ কম হয়

ঘ) বায়ুর চাপের পার্থক্য কম হয় 

উত্তর: খ) বায়ুর চাপের পার্থক্য বেশি হয় 

১.৩ টোকিও – ইয়ােকোহামা শিল্পাঞ্চলের উন্নতির অন্যতম প্রধান কারণ হলাে –

ক) খনিজ ও শক্তি সম্পদের সহজলভ্যতা 

খ) স্বল্প জনঘনত্ব 

গ) উন্নত প্রযুক্তি ও দক্ষ শ্রম

ঘ) সমুদ্র থেকে দূরবর্তী স্থানে অবস্থান 

উত্তর: গ) উন্নত প্রযুক্তি ও দক্ষ শ্রম

১.৪ ভূভাগ ভাজ খেয়ে উপরের দিকে উঠে যে পর্বত সৃষ্টি করে তার উদাহরণ হলাে –

ক) সাতপুরা 

খ) ভােজ 

গ) কিলিমাঞ্জারাে 

ঘ) হিমালয়

উত্তর: ঘ) হিমালয়

১.৫ ঠিক জোড়াটি নির্বাচন করাে

ক) নদীর উচ্চপ্রবাহ – ভূমির ঢাল কম 

খ) নদীর উচ্চপ্রবাহ – নদীর প্রধান কাজ ক্ষয় 

গ) নদীর নিম্নপ্রবাহ – ভূমির ঢাল বেশি

ঘ) নদীর নিম্নপ্রবাহ – নদীর প্রধান কাজ বহন 

উত্তর: খ) নদীর উচ্চপ্রবাহ – নদীর প্রধান কাজ ক্ষয় 

Class 7 Model Activity Task Geography Part 8 combined

১.৬ আফ্রিকা মহাদেশের মাঝ বরাবর পূর্ব-পশ্চিমে বিস্তৃত কাল্পনিক রেখাটি হলাে –

ক) কর্কটক্রান্তি রেখা 

খ) মকরক্রান্তি রেখা 

গ) মূলমধ্যরেখা 

ঘ) বিষুবরেখা

উত্তর: ঘ) বিষুবরেখা

১.৭ পৃথিবীর ছাদ’ যে মালভূমিকে বলা হয় সেটি হলাে—

ক) ছছাটোনাগপুর মালভূমি 

খ) মালব মালভূমি 

গ) পামীর মালভূমি 

ঘ) লাদাখ মালভূমি

উত্তর: গ) পামীর মালভূমি 

১.৮ নদীর উচ্চ প্রবাহে ‘I’ আকৃতির উপত্যকা সৃষ্টির অন্যতম প্রধান কারণ হলাে—

ক) ভূমির ঢাল কম থাকা 

খ) উপনদীর সংখ্যা বেশি থাকা 

গ) নদীর নিম্নক্ষয়ের ক্ষমতা বেশি হওয়া

ঘ) নদীর পাশ্বক্ষয়ের ক্ষমতা বেশি হওয়া 

উত্তর: গ) নদীর নিম্নক্ষয়ের ক্ষমতা বেশি হওয়া

১.৯ যে রূপান্তরিত শিলা বিভিন্ন সৌধ নির্মাণে কাজে লাগে তা হলাে—

ক) চুনাপাথর 

খ) কাদাপাথর 

গ) ব্যাসল্ট 

ঘ) মার্বেল

উত্তর: ঘ) মার্বেল

Class 7 Model Activity Task Geography Part 8 combined

২. শূন্যস্থান পূরণ করাে : ১ × ৩ = ৩

২.১ নিরক্ষরেখা থেকে মেরুর দিকে অক্ষরেখার পরিধি ক্রমশ ___________ থাকে। 

উত্তর: নিরক্ষরেখা থেকে মেরুর দিকে অক্ষরেখার পরিধি ক্রমশ কমতে থাকে।

২.২ বায়ুতে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ কমে গেলে বায়ুর চাপ ___________ পায়। 

উত্তর: বায়ুতে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ কমে গেলে বায়ুর চাপ বৃদ্ধি পায়।

২.৩ এশিয়া মহাদেশের একটি উত্তরবাহিনী নদী হলাে ___________ ।

উত্তর: এশিয়া মহাদেশের একটি উত্তরবাহিনী নদী হলাে লেনা ।

৩. বাক্যটি সত্য হলে ‘ঠিক’ এবং অসত্য হলে ‘ভুল’ লেখাে: ১ × ৩ = ৩

৩.১ ব্যবচ্ছিন্ন মালভূমির একটি উদাহরণ হলাে ছােটনাগপুর মালভূমি। 

উত্তর: ঠিক

৩.২ শীতল ও শুষ্ক জলবায়ুতে মাটি সৃষ্টি হতে বেশি সময় লাগে।

উত্তর: ঠিক

৩.৩ জুলাই মাসে উত্তর আফ্রিকায় যখন গ্রীষ্মকাল, দক্ষিণ আফ্রিকায় তখন শীতকাল। 

উত্তর: ঠিক

Class 7 Model Activity Task Geography Part 8 combined

৪. স্তম্ভ মেলাও: ১ × ৩ = ৩

‘ক’ স্তম্ভ ‘খ’ স্তম্ভ
৪.১ ফুজিয়ামা i) আগ্নেয় শিলা
৪.২ গ্রানাইট ii) নদীর মধ্যপ্রবাহ
৪.৩ মিয়েন্ডার iii) আগ্নেয় পর্বত

উত্তর:

‘ক’ স্তম্ভ ‘খ’ স্তম্ভ
৪.১ ফুজিয়ামা iii) আগ্নেয় পর্বত
৪.২ গ্রানাইট i) আগ্নেয় শিলা
৪.৩ মিয়েন্ডার ii) নদীর মধ্যপ্রবাহ

Class 7 Model Activity Task Geography Part 8 combined

৫. সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও :  ২ × ৪ = ৮

৫.১ কোন তারিখকে কর্কট সংক্রান্তি বলা হয় ও কেন? 

উত্তর: 21 শে জুন তারিখটিকে কর্কটসংক্রান্তি বলা হয় । কারণ নিজের পরিক্রমণ গতিতে 21 শে জুন তারিখে পৃথিবীর উত্তর গোলার্ধ সূর্যের দিকে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকে থাকে । ওইদিন সূর্যকিরণ কর্কটক্রান্তিরেখার উপর লম্বভাবে পড়ে বলে, 21 শে জুন তারিখটিতে উত্তর গোলার্ধে দিন সবচেয়ে বড়ো এবং রাত সবচেয়ে ছোটো হয় । আর দক্ষিণ গোলার্ধে ঠিক এর বিপরীত অবস্থার সৃষ্টি হয় । 21 শে জুন সূর্য উত্তরায়ণের শেষ সীমা কর্কটক্রান্তিরেখার উপর পৌঁছায় বলে 21 শে জুন দিনটিকে কর্কটসংক্রান্তি বলা হয় ।

৫.২ অক্ষরেখা ও দ্রাঘিমারেখার একটি করে বৈশিষ্ট্য উল্লেখ করাে। 

উত্তর: অক্ষরেখাগুলো পূর্ণবৃত্ত আর দ্রাঘিমারেখাগুলি অর্ধবৃত্ত ।

৫.৩ সুউচ্চ হিমালয় পর্বত কীভাবে আমাদের দেশের জলবায়ুকে প্রভাবিত করে? 

উত্তর: ভারতের উত্তর দিকে প্রাচীরের মতো সুউচ্চ হিমালয় পর্বত অবস্থান করছে । এই পর্বত থাকায় দক্ষিণ পশ্চিম – মৌসুমি বায়ু এখানে বাধাপ্রাপ্ত হয়ে উত্তর – পূর্ব ভারতে প্রচুর বৃষ্টিপাত ঘটায় , অপরদিকে শীতকালে উত্তরের শীতল সাইবেরীয় বাতাস ভারতে প্রবেশ করতে বাধা পায় । ফলে ভারতে শীতের প্রকোপ কম হয় ।

৫.৪ ভূমির ঢাল ও উচ্চতার ভিত্তিতে মালভূমি ও সমভূমির পার্থক্য নিরূপণ করাে।

উত্তর: 

ভিত্তি মালভূমি সমভূমি
ভূমির ঢাল  চারপাশে খাড়া ঢালযুক্ত হয়ে থাকে l উপরিভাগ সমতল বা ঢেউ খেলানো হয়ে থাকে l
উচ্চতা গড় সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৩০০ মিটারের বেশি উচু বেশি l গড় সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৩০০ মিটারের কম উঁচু l

Class 7 Model Activity Task Geography Part 8 combined

৬. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও : ৩ × ৩ = ৯

৬.১ মেরু অঞ্চল ও নিরক্ষীয় অঞ্চলে বায়ুর উষ্মতার তারতম্য কীভাবে দুই অঞ্চলের বায়ুচাপকে নিয়ন্ত্রণ করে তা ব্যাখ্যা করাে।। 

উত্তর: বায়ুমন্ডলের উষ্ণতার সঙ্গে বায়ুচাপ ব্যস্তানুপাতে পরিবর্তিত হয় অর্থাৎ বায়ুর উষ্ণতা বাড়লে বায়ুর চাপ কমে এবং উষ্ণতা কমলে বায়ুচাপ বাড়ে । বায়ু উষ্ণ হলে হাল্কা ও প্রসারিত হয়, ফলে তার চাপ কমে যায় । এই কারণে নিরক্ষীয় অঞ্চলে সারা বছর প্রখর সূর্যের তাপে বায়ু উষ্ণ ও হাল্কা হয়ে নিম্নচাপের সৃষ্টি করেছে । অপরদিকে, মেরু অঞ্চলে সূর্যতাপের অভাবে তীব্র শীতলতার কারণে বায়ু শীতল ও সংকুচিত হয়ে উচ্চচাপের সৃষ্টি করেছে ।

৬.২ মাটির দানার আকারের উপর ভিত্তি করে মাটির শ্রেণিবিভাগ করাে। প্রতিটি শ্রেণির একটি করে বৈশিষ্ট্য লেখাে। 

উত্তর:  মাটির দানার আকারের উপর ভিত্তি করে মাটিকে তিন ভাগে ভাগ করা যায় । যথা : 

1. বেলে মাটি : মাটির দানার আকার মোটা 

2. এটেল মাটি : মাটির দানার আকার সূক্ষ্ম 

3. দোয়াঁশ মাটি : মাটির দানার আকার মাঝারি

৬.৩ নীলনদের উপর কী উদ্দেশ্যে আসােয়ান বাঁধ নির্মাণ করা হয়েছিল? 

উত্তর:  নীলনদের উপর মিশরীয়রা বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও কৃষি জমিতে জলসেচ এই দুটি মূল উদ্দেশ্যে আসোয়ান বাঁধ তৈরি করে ।

৭. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও : ৫ × ৩ = ১৫

৭.১ এশিয়া মহাদেশের নিরক্ষীয় ও উয়ু মরু জলবায়ু স্বাভাবিক উদ্ভিদের চরিত্রকে কীভাবে প্রভাবিত করে তা আলােচনা করাে। 

উত্তর: 

 ■ নিরক্ষীয় জলবায়ু ও স্বাভাবিক উদ্ভিদ :এশিয়া মহাদেশের নিরক্ষরেখার কাছাকাছি 10 ° উত্তর অক্ষরেখা থেকে 10 ° দক্ষিণ অক্ষরেখার মধ্যে ইন্দোনেশিয়া, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা, সিঙ্গাপুর প্রভৃতি দেশে নিরক্ষীয় জলবায়ু দেখা যায় । এই জলবায়ুর অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো অধিক উষ্ণতা (বার্ষিক গড় উষ্ণতা 25°-30 ° সে.) ও অধিক বৃষ্টিপাত (বার্ষিক গড় বৃষ্টিপাত 200-300 সেমি) । এই অধিক উষ্ণতা ও বৃষ্টিপাতের কারণে নিরক্ষীয় অঞ্চলে সারাবছর সবুজ পাতাযুক্ত শক্ত কাঠের চিরহরিৎ অরণ্যের সৃষ্টি হয়েছে । মেহগনি , রোজউড , আয়রন উড , সেগুন , আবলুস , রবার , কোকো , সিঙ্কোনা প্রভৃতি এই অরণ্যের প্রধান উদ্ভিদ ।

■ উষ্ণ মরু জলবায়ু ও স্বাভাবিক উদ্ভিদ : এশিয়া মহাদেশের আরবের মরুভূমি , ভারত ও পাকিস্তানের থর মরুভূমি , ইরাক , ইরান , কুয়েত প্রভৃতি দেশগুলোতে উষ্ণ মরু জলবায়ু দেখা যায় । অধিক উষ্ণতা (35 ° সে.) ও অতি অল্প বৃষ্টিপাত (10-25 সেমি) এই জলবায়ুর অন্যতম বৈশিষ্ট্য । যার প্রভাব এখানকার স্বাভাবিক উদ্ভিদের উপরও স্পষ্ট । বৃষ্টিপাত কম হওয়ার জন্য এখানকার গাছগুলোর কান্ড ও পাতা মোম জাতীয় পদার্থ দিয়ে ঢাকা থাকে যাতে প্রস্বেদন প্রক্রিয়ায় গাছে জল বেরিয়ে না যায় । অধিকাংশ গাছই কাঁটা জাতীয় হয়ে থাকে । যেমন : ক্যাকটাস , বাবলা , ফনিমনসা , খেজুর প্রভৃতি ।

৭.২ আফ্রিকা মহাদেশের নিরক্ষীয় অঞ্চল ও ভূমধ্যসাগর সন্নিহিত অঞ্চলের স্বাভাবিক উদ্ভিদ কীভাবে জলবায়ু দ্বারা নিয়ন্ত্রিত তা ব্যাখ্যা করাে। 

উত্তর: 

নিরক্ষীয় অঞ্চল ও স্বাভাবিক উদ্ভিদ : আফ্রিকার নিরক্ষরেখার কাছাকাছি অঞ্চলে সারাবছর গরম (27° সে.), মোট বৃষ্টিপাতের পরিমাণ , 200-250 সেমি । লম্ব সূর্যরশ্মি আর সারা বছর বৃষ্টিতে এখানে শক্ত কাঠের ঘন জঙ্গল সৃষ্টি হয়েছে । মেহগনি , রোজউড , এবনি এই ঘন জঙ্গলের প্রধান গাছ । ঋতু পরিবর্তন না হওয়ায় এবং সারাবছর বৃষ্টিপাত হওয়ায় এখানকার গাছগুলোর পাতা সবুজ থাকে । তাই এই অরণ্যের নাম নিরক্ষীয় চিরসবুজ অরণ্য ।

ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চল ও স্বাভাবিক উদ্ভিদ : আফ্রিকার একেবারে উত্তর – পশ্চিম ও দক্ষিণ – পশ্চিম অংশে ভূমধ্যসাগরীয় জলবায়ু দেখা যায় । এই জলবায়ু অঞ্চলে শীতকালে বৃষ্টি হয় । সারা বছরে 50-100 সেমি বৃষ্টি হয় । গরমকাল বৃষ্টিহীন থাকে । বাষ্পমোচন রোধ করার জন্য গাছের পাতায় নরম মোমের আস্তরণ দেখা যায় । জলপাই , ওক , আখরোট , ডুমুর , কর্ক প্রভৃতি গাছগুলো এখানে জন্মায় । গরমকালে জলের সন্ধানে গাছের মূলগুলো অনেক গভীরে চলে যায় ।

৭.৩ ‘মানুষের নানাবিধ ক্রিয়াকলাপ নদীর উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে’- বক্তব্যটির যথার্থতা বিচার করাে।

উত্তর:  মানুষের জীবনের সঙ্গে নদীর সম্পর্ক অতি নিবিড় হলেও , মানুষের কিছু কিছু কাজ নদীর স্বাভাবিক ছন্দকে নষ্ট করে নদীর উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে । যেমন : কৃষি ব্যবস্থার প্রসার , শিল্পায়ন , নগরায়ন , ইত্যাদি নানাভাবে নদীকে প্রভাবিত করছে । বন্যা নিয়ন্ত্রণের জন্য নদীর উপর কৃত্রিম বাঁধ তৈরি করলে সামরিক সুফল পাওয়া গেলেও শেষ পর্যন্ত তা আরও ভয়াবহ বন্যারই কারণ হয়ে উঠছে ! একদিকে কৃষিজমি থেকে ধুয়ে আসা পলিতে নদী ক্রমশ ভরাট হচ্ছে । অন্যদিকে সেচের জলের যোগান দিতে নদী ক্রমশ শুকিয়ে যাচ্ছে । শহর , শিল্পাঞ্চলের বর্জ্য জল নদীতে অবাধে মিশে গিয়ে নদীর জল ক্রমশ বিষাক্ত হয়ে যাচ্ছে । তাই সবশেষে বলা যায় , ‘মানুষের নানাবিধ ক্রিয়াকলাপ নদীর উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে’ এই বক্তব্যটি যথার্থ ।

Model Activity Task Class 7 Science Part 8-মডেল এক্টিভিটি টাস্ক সপ্তম শ্রেণী Part 8

Model Activity Task Class 7 Science Part 8-মডেল এক্টিভিটি টাস্ক সপ্তম শ্রেণী Part 8

Model Activity Task

Sub:- Science

১. ঠিক উত্তর নির্বাচন করাে :

১.১ অপ্রভ বস্তুটি হলাে –

(ক) মােমবাতির শিখা 

(খ) সূর্য 

(গ) চাঁদ

(ঘ) জোনাকি

উত্তর: (গ) চাঁদ

১.২ যেটি জীবাশ্ম জ্বালানি নয় সেটি হলাে –

(ক) কয়লা

(খ) পেট্রোল

(গ) ডিজেল

(ঘ) গােবর গ্যাস

উত্তর: (ঘ) গােবর গ্যাস

১.৩ উদ্ভিদের মূলের ডগার টুপির মতাে অংশের ঠিক ওপরের জায়গা যেখানে কোনাে রোঁয়া থাকে না সেটি হলাে –

(ক) মূলত্র অঞ্চল 

(খ) বর্ধনশীল অঞ্চল 

(গ) স্থায়ী অঞ্চল

(ঘ) মূলরােম অঞ্চল 

উত্তর: (খ) বর্ধনশীল অঞ্চল 

১.৪ যেক্ষেত্রে আলাের বিক্ষিপ্ত প্রতিফলন ঘটে না সেটি হলাে –

(ক) দেয়াল

(খ) কাগজ

(গ) কাপড়

(ঘ) আয়না

উত্তর: (ঘ) আয়না

১.৫ যেটি পরিবেশবান্ধব শক্তির উৎস নয় সেটি হলাে –

(ক) সূর্য 

(খ) বায়ুপ্রবাহ 

(গ) জীবাশ্ম জ্বালানি 

(ঘ) জৈব গ্যাস

উত্তর: (গ) জীবাশ্ম জ্বালানি 

১.৬ রূপান্তরিত অর্ধবায়বীয় কাণ্ড দেখা যায় যে উদ্ভিদে সেটি হলাে –

(ক) আলু 

(খ) কচুরিপানা 

(গ) বেল

(ঘ) কুমড়াে

উত্তর: (খ) কচুরিপানা 

২. শূন্যস্থান পূরণ করাে :

২.১ ইস্ত্রিতে তড়িৎপ্রবাহের ____________ ফলাফলের প্রয়ােগ করা হয়। 

উত্তর: ইস্ত্রিতে তড়িৎপ্রবাহের ____________তাপীয়______  ফলাফলের প্রয়োগ করা হয়।

২.২ আমের আঁটি ____________ ঢেকে রাখে।

উত্তর: আমের আঁটি ___________বীজকে_________ ঢেকে রাখে।

২.৩ এঁচোড় হলাে ____________ ফলের একটি উদাহরণ। 

উত্তর: এঁচোড় হলো _______যৌগিক_____________ ফলের একটি উদাহরণ।

৩. ঠিক বাক্যের পাশে ‘’ আর ভুল বাক্যের পাশে ‘X’ চিহ্ন দাও : 

৩.১ কোনাে বস্তুকে তাপ দিলে তার উষ্ণতার পরিবর্তন হবেই। 

উত্তর: ভুল 

৩.২ ভিটামিন D-এর অভাবে বেরিবেরি রােগ হয়।

উত্তর: ভুল 

৩.৩ কঠিন সােডিয়াম ক্লোরাইডের মধ্যে অণুর কোনাে অস্তিত্ব নেই। 

উত্তর: ঠিক 

৩.৪ কোনাে দণ্ডচুম্বকের জ্যামিতিক দৈর্ঘ্য তার চৌম্বক দৈর্ঘ্যের চেয়ে সামান্য কম হয়। 

উত্তর: ঠিক 

৩.৫ কাণ্ডের যে অংশ থেকে শাখা বেরােয় তাকে পর্বমধ্য বলে।

উত্তর: ভুল 

৩.৬ তেঁতুল পাতা হলাে একক পত্রের একটি উদাহরণ।

উত্তর: ভুল 

৪. সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও :

৪.১ সমীকরণটি ব্যালান্স করে লেখাে : 

উত্তর: P+ 5O2 = P4O10

৪.২ মানবদেহে আয়ােডিনের একটি কাজ উল্লেখ করাে।

উত্তর: আয়োডিন মানবমস্তিষ্কের ও স্নায়ুতন্ত্রের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ও বিকাশে, থাইরক্সিনের উপাদান গঠনে সাহায্য করে।

৪.৩ আম দিয়ে তৈরি একটি প্রক্রিয়াজাত খাবারের উদাহরণ দাও। 

উত্তর: আম দিয়ে তৈরি একটি প্রক্রিয়াজাত খাবারের উদাহরণ হল জ্যাম ও জেলি।

৫. একটি বা দুটি বাক্যে উত্তর দাও : ২×৭ = ১৪

৫.১ কিডপ্রিক ক্লোরাইডের জলীয় দ্রবণে জিঙ্কের টুকরো যোগ করলে কী ধরনের বিক্রিয়া হবে? বিক্রিয়ার সমীকরণ লেখো।

উত্তরঃ কিউগ্রিক ক্লোরাইডের জলীয় দ্রবণে জিঙ্কের টুকরো যোগ করলে জিঙ্ক ক্লোরাইড উৎপন্ন হয় এবং ধাতব কপার অধঃক্ষিপ্ত হয়।

image 23
৫.২ কী কী উপায়ে ফিল্টার যন্ত্রের সাহায্য ছাড়াই বাড়িতে বিশুদ্ধ পানীয় জল তৈরি করা যায়?

উত্তরঃ ফিল্টার যন্ত্রের সাহায্য ছাড়াই বাড়িতে বিশুদ্ধ পানীয় জল তৈরির প্রক্রিয়া-

  • প্রথমত, জলকে অন্তত ২০ মিনিট ফুটিয়ে জলকে বিশুদ্ধ করা যেতে পারে।
  • দ্বিতীয়ত, জলে হ্যালোজেন ট্যাবলেট মিশিয়ে বিশুদ্ধ পানীয় জল তৈরি করা যেতে পারে।
  • তৃতীয়ত, জলে প্রায় ৩০ মিনিট ফটকিরি ডুবিয়ে জলকে পানীযোগ্য করা যায়।
৫.৩ পৃথিবী যে নিজেই একটা চুম্বক তার পক্ষে কী প্রমাণ আছে?

উত্তরঃ পৃথিবী  যে  নিজেই  একটা  চুম্বক  তার  পক্ষে  অনেক  প্রমাণ  আছে।  যেমন  একটি  দন্ড চুম্বককে ঝুলন্ত  অবস্থায়  রেখে  দিলে  পৃথিবীর  চুম্বকত্বের  প্রভাবে  চুম্বকটি  সর্বদা  উত্তর-দক্ষিণ  মুখ করে  থাকে।

৫.৪ কী কী উপায়ে উদ্ভিদে স্বপরাগযোগ ঘটাতে পারে?

উত্তরঃ নিম্নলিখিত  উপায়ে  স্বপরাগযোগ  ঘটতে  পারে  – (i) একটি  ফুলের  থেকে  পরাগরেণু  সেই  ফুলের গর্ভমুণ্ডে  স্থানান্তরিত  হয়ে।  (ii)  একটি  ফুলের  থেকে  পরাগরেণু  সেই  গাছের  অন্য  ফুলের  গর্ভমুণ্ডে স্থানান্তরিত  হয়ে।

৫.৫ চালু লাইনের কাজ করার সময় ইলেকট্রিক মিস্ত্রির কীসের ওপর দাঁড়িয়ে কাজ করা উচিত লোহার চেয়ার না কাঠের টুল? কেন?

উত্তরঃ চালু লাইনের কাজ করার সময় ইলেকট্রিক মিস্ত্রির কাঠের টুলের ওপর দাঁড়িয়ে কাজ করা উচিত।  কারণ, কাঠ হলো তড়িতের কুপরিবাহী, অর্থাৎ কাঠের মধ্য দিয়ে তড়িৎ চলাচল করতে পারে না। তাই  ইলেকট্রিক মিস্ত্রিরা কাজ করার সময় কাঠের টুলের ওপর দাঁড়িয়ে কাজ করলে বৈদ্যুতিক শক খাওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়।

৫.৬ উদ্ভিদের মূলের প্রধান কাজ কী কী?

উত্তরঃ উদ্ভিদের মূলের প্রধান কাজগুলি হলো:

i. উদ্ভিদের মূল উদ্ভিদকে মাটির সঙ্গে শক্তভাবে আবদ্ধ করে রাখে ।

ii. উদ্ভিদের মূল মাটি থেকে জল ও প্রয়োজনীয় খনিজ লবণ শোষণে সাহায্য করে।

৫.৭ হাতে স্পিরিট বা ইথার ঢাললে ঠান্ডা লাগে কেন ?

উত্তরঃ হাতে বা গায়ে স্পিরিট লাগলে ঠান্ডা বোধ হয়। স্পিরিট উদবায়ী তরল বলে দ্রুত বাষ্পে পরিণত হয়। এই বাষ্পায়নের জন্য স্পিরিট প্রয়োজনীয় লীন তাপ হাত বা গা থেকে গ্রহণ করে। ফলে হাত বা গা- এর স্পিরিট- লাগা অংশটুকু ঠান্ডা হয়ে যায়।

৬. তিন-চারটি বাক্যে উত্তর দাও : ৩×৬ =১৮

৬.১ যে উয়তায় সেলসিয়াস ও ফারেনহাইট স্কেলের পাঠ সমান হবে তা নির্ণয় করো।

উত্তরঃ

 ধরি, নির্ণেয় উষ্ণতা = x0

 C = F = x0

অতএব  – 40° তাপমাত্রায় সেলসিয়াস ও ফারেনহাইট স্কেলে পাঠ একই হবে।

উত্তরঃ খাদ্যে উপযুক্ত পরিমাণে প্রোটিন ও ক্যালোরির অভাবে সাধারনত ১ থেকে ৪ বছরের শিশুদের দেহে এই রোগ দেখা যায়।

লক্ষণ : কোয়াশিওরকর রোগের প্রধান লক্ষণ দেখা সেগুলি হল –

(১) শিশুদের বৃদ্ধি ব্যাহত হয়

(২) উদর বেশ বড়ো হয়

(৩) ত্বক আঁশযুক্ত ও ভঙ্গুর    

(৪) শরীরে রক্তাল্পতা দেখা যায়

(৫) হাত পা ও গলা সরু হয়ে যায়

(৬) পা ও হাত বেঁকে যায়

(৭) শরীরের ওজন কমে যায়

(৮) মাথার চুল পাতলা ও বিবর্ণ হয়ে যায়

৬.৩ একটি চিহ্নিত চিত্রের সাহায্যে ঘন মাধ্যম থেকে লঘু মাধ্যমে প্রতিসরণের ক্ষেত্রে আলোকরশ্মির গতিপথ কেমন হবে তা দেখাও।

উত্তরঃ

৬.৪ সাপ কীভাবে জেকবসনস অগ্যান’– এর সাহায্যে তার চারপাশের পরিবেশ সম্বন্ধে জানতে পারে।

উত্তরঃ বিভিন্ন  প্রাণীর  দেহ  থেকে  নানা  উদবায়ী  যৌগের  অণু  বাতাসের  মধ্যে  দিয়ে  ছড়িয়ে  পড়ে। সাপের  জিভে  সেইসব  যৌগের  অণুরা  আটকে  যায়।  তারপর  সাপ  মুখের  মধ্যে  জিভটা  ঢুকিয়ে  নিয়ে উপরের  তালুতে  ঠেকায়।  সেখানে  থাকে  একটি  বিশেষ  অঙ্গ।  একে  বলা  হয়  জেকবসন  অর্গ্যান।  সাপ  যখন  জিভটা  সেখানে  ঠেকায়  তখন  সেই  গন্ধের  অনুগুলো  মস্তিষ্কে  উদ্দীপনা  সৃষ্টি  করে।  এইভাবে  সাপ  ‘ জেকবসনস  অর্গ্যান ‘ – এর  সাহায্যে  তার  চারপাশের  পরিবেশ  সম্বন্ধে  জানতে পারে।

৬.৫ সুচিছিদ ক্যামেরার ছিদ্রটি বড়ো করা হলে প্রতিকৃতির কী পরিবর্তন হবে? ব্যাখ্যা করো।

উত্তরঃ সুচিছিদ্র ক্যামেরার ছিদ্রটি বড়ো করা হলে প্রতিকৃতি অস্পষ্ট হয়ে যাবে কারণ, সুচিছিদ্র ক্যামেরার ছিদ্রটি বড়ো করা হলে তা অসংখ্য ছোটো ছোটো ছিদ্রের সমষ্টিরূপে কাজ করে। ফলে প্রতিটি সুক্ষ্ম ছিদ্র এক একটি পৃথক পৃথক প্রতিকৃতি তৈরি করে। এর ফলে সমস্ত প্রতিকৃতি গুলি মিশে গিয়ে একটি অস্পষ্ট প্রতিকৃতি তৈরী করে।

৬.৬ সমুদ্রের মাছ কীভাবে নিজের দেহে জলের পরিমাণ স্বাভাবিক রাখে ব্যাখ্যা করো।

উত্তরঃ

নিম্নলিখিত পদ্ধতির মাধ্যমে সমুদ্রের মাছ নিজের দেহে জলের পরিমান স্বাভাবিক রাখে :

  •  সমুদ্রের মাছ ঘন মূত্র ত্যাগ করে ফলে তাদের দেহ থেকে খুব কম পরিমাণ জল বেরিয়ে যায়।
  • সমুদ্রের মাছ ফুলকার মাধ্যমে দেহের অতিরিক্ত আয়ন ত্যাগ করে।

[Part 8] Class 7 Model Activity Task Health and Physical Part 8-সপ্তম শ্রেনীর সমস্ত বিষয়

[Part 8] Class 7 Model Activity Task Health and Physical Part 8-সপ্তম শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

Model Activity Task

Sub:- Health and Physical (স্বাস্থ্য ও শারীরশিক্ষা)

Class 7 (সপ্তম শ্রেনী)

(ক) সঠিক উত্তরটিকে বেছে নিয়ে (√) চিহ্ন দাওঃ 

(১) ইস্টবেঙ্গল ক্লাব কত সালে প্রতিষ্ঠিত হয়? 

(i) ১৯২১

(ii) ১৯১১

(iii) ১৯২০ 

উত্তর: (iii) ১৯২০ 

(২) অ্যাথলেটিক্স শব্দটি কোথা থেকে এসেছে? 

(i) ইথানল 

(ii) এথেন্স

(iii) অ্যাথলন 

উত্তর: (iii) অ্যাথলন 

(৩) মােহনবাগান ক্লাব কত সালে সাহেবদের হারিয়ে শিল্ড চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল? 

(i) ১৮১১

(ii) ১৯১১

(iii) ১৯১৬ 

উত্তর: (ii) ১৯১১

(৪) মেদাধিক্যের কারণ কী? 

(i) শরীরচর্চার অনভ্যাস

(ii) হরমােনের সমস্যা 

(iii) ফাস্টফুড খাওয়া

(iv) সব কয়টি 

উত্তর: (iv) সব কয়টি 

(৫) সাধারণত পূর্ণবয়স্ক পুরুষদের দেহের ওজনের কত শতাংশ মেদ থাকে? 

(i) ১০%

(ii) ১৫% 

(iii) ২%

(iv) ২৫% 

উত্তর: (ii) ১৫% 

(৬) মেদবৃদ্ধি রুখতে কী করতে হবে? 

(i) শরীরচর্চা

(ii) পরিমিত খাওয়া 

(iii) সঠিক জীবনশৈলী

(iv) সব কয়টি 

উত্তর: (iv) সব কয়টি 

(৭) খাদ্য থেকে প্রাপ্ত দেহের চাহিদার অতিরিক্ত ক্যালােরি দেহের কি বৃদ্ধি ঘটাতে পারে? 

(i) হৃৎপিণ্ডের কার্যক্ষমতা বাড়ায়

(ii) মেদাধিক্য ঘটায় 

(iii) স্নায়ুর কার্যকারিতা বৃদ্ধি করে

(iv) হাড়ের গঠন সুদৃঢ় করে 

উত্তর: (ii) মেদাধিক্য ঘটায় 

(৮) একজন স্বাভাবিক ওজনের শিক্ষার্থীর দেহভর সূচকটি কত? 

(i) ১৮ কিলােগ্রাম/মিটার

(ii) ১৮.৫ – ২৪.৫ কিলােগ্রাম/মিটার 

(iii) ৩০ এর বেশি কিলােগ্রাম/মিটার

উত্তর: (ii) ১৮.৫ – ২৪.৫ কিলােগ্রাম/মিটার

(৯) যদি কোনাে শিক্ষার্থীর দেহের ওজন তার স্বাভাবিক ওজন যা হওয়া উচিত তার কম হয় তাহলে কী সমস্যা দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা থাকে? 

(i) মধুমেহ

(ii) রােগ প্রতিরােধ ক্ষমতা হ্রাস পায় 

(iii) মেদাধিক্য 

উত্তর: (ii) রােগ প্রতিরােধ ক্ষমতা হ্রাস পায় 

(১০) কোনটি দেহভর সূচকের সূত্র ? 

উত্তর: (i) 

Class 7 Model Activity Task Health and Physical Part 8

খ) শূন্যস্থান পূরণ করাে ?

(১) খেলা মানুষের __________ প্রবৃত্তি ।

উত্তর: খেলা মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি ।

(২) গ্রিক শব্দ __________ থেকে জিমনাস্টিকস কথাটি এসেছে।

উত্তর: গ্রিক শব্দ জিমনস থেকে জিমনাস্টিকস কথাটি এসেছে।

(৩) জৈনধর্ম __________ মূর্ত প্রতীক হিসাবে বিদ্যমান।

উত্তর: জৈনধর্ম অহিংসার মূর্ত প্রতীক হিসাবে বিদ্যমান।

(৪) এন. সি. সি.-র __________  __________  রং নৌসেনা বাহিনীর প্রতীক।

উত্তর: এন. সি. সি.-র হালকা নীল রং নৌসেনা বাহিনীর প্রতীক।

(৫) __________ দেহ ও মনের মধ্যে সমন্বয়সাধন করে, যা স্বাস্থ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। 

উত্তর: ব্যায়াম দেহ ও মনের মধ্যে সমন্বয়সাধন করে, যা স্বাস্থ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। 

(৬) ব্যায়াম পেশির _____চোট_____ প্রতিকারের ক্ষেত্রে একটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহণ করে।

উত্তর: ব্যায়াম পেশির চোট প্রতিকারের ক্ষেত্রে একটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহণ করে।

(৭) পরিমিত খাদ্যাভ্যাস ও নিয়মিত ব্যায়ামের দ্বারা __________ দূর করা সম্ভব।

উত্তর: পরিমিত খাদ্যাভ্যাস ও নিয়মিত ব্যায়ামের দ্বারা মেদবাহুল্য দূর করা সম্ভব।

(৮) যখন তখন __________ পড়ার অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে। 

উত্তর: যখন তখন ঘুমিয়ে পড়ার অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে। 

(৯) প্রতিদিন যে পরিমাণ ক্যালােরি প্রয়ােজন তার থেকে ২০০০ ক্যালােরি কম খাবার গ্রহণ করতে চাইলে অবশ্যই __________ পরামর্শ নিতে হবে।

উত্তর: প্রতিদিন যে পরিমাণ ক্যালােরি প্রয়ােজন তার থেকে ২০০০ ক্যালােরি কম খাবার গ্রহণ করতে চাইলে অবশ্যই বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে।

Class 7 model activity task swasthya sarir sikha part 8

Class 7 Model Activity Task Health and Physical Part 8

(গ) সঠিক বক্তব্যটির পাশে সত্য এবং ভুল বক্তব্যটির পাশে মিথ্যা লেখাে এবং ভুল থাকলে সংশােধন করাে। 

(১) বিদ্যালয়ের মিড-ডে মিলের আহার একটি পুষ্টিবর্ধক কর্মসূচি। 

উত্তর: সত্য 

(২) মেদ ঝরাতে ফাস্টফুড বর্জন করতে হবে। 

উত্তর: সত্য 

(৩) ব্যায়াম করলে হৃদপিণ্ডের কার্যকারিতা বৃদ্ধি পায়। 

উত্তর: সত্য 

(৪) প্রাণায়াম করলে ফুসফুসের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

উত্তর: সত্য 

(৫) খেলাধুলাে করলে শিশুর শারীরিক ও মানসিক বিকাশ ঘটে। 

উত্তর: সত্য 

Class 7Model Activity Task Link :
[Part-7] মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক বাংলা
[Part-7] মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক গণিত
[Part-7] মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক ইংরেজি
[Part-7] মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক ইতিহাস
[Part-7] মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক ভূগোল
[Part-7] মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক পরিবেশ
[Part-7] মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক  স্বাস্থ ও শরীরশিক্ষা

Class 7 Model Activity Task Health and Physical Part 8 combined

Class 7 Model Activity Task English Part 8

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

FansLike
FollowersFollow
0FollowersFollow
FollowersFollow
SubscribersSubscribe
- Advertisment -

Most Popular

State Wise Govt Jobs In India