Wednesday, May 18, 2022
HomeClass IXClass 9 Model Activity Task BengaliClass 9 Model Activity Task Bengali Part 1-বাংলা (নবম শ্রেনীর সমস্ত বিষয়)

Class 9 Model Activity Task Bengali Part 1-বাংলা (নবম শ্রেনীর সমস্ত বিষয়)

Class 9 Model Activity Task Bengali Part 1 -বাংলা (নবম শ্রেনীর সমস্ত বিষয়)

Model Activity Task

Class 9 (নবম শ্রেনী)

Sub:- Bengali (বাংলা)

Part 1

Class 9 Model Activity Task Bengali Part 1
Class 9 Model Activity Task Bengali Part 1

অষ্টম শ্রেনীর সমস্ত বিষয়

[ninja_tables id=”4404″]

নবম শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

[ninja_tables id=”4432″]

দশম শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

[ninja_tables id=”4297″]

নিচের প্রশ্ন গুলির উত্তর দাও

1. কলিঙ্গ দেশে ঝড় বৃষ্টি কাব্যাংশে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ছবি কীভাবে ধরা পড়েছে ?

উত্তরঃ-  কলিঙ্গের আকাশে ঈশান কোণের পুঞ্জিভূত মেঘ উত্তুরে বাতাসের সংস্পর্শে এসে তীব্র আকার ধারণ করে ফেলল এবং মেঘে ঢেকে অন্ধকার করে দেয়। সেই গাঢ় অন্ধকারের মানুষ নিজের শরীরে পর্যন্ত দেখতে পায় না। এই মেঘের তীব্র গর্জনের সাথে মুষুলধারে জল বর্ষণ করতে থাকে । এসব কিছু প্রলয়ের পূর্বাভাস ভেবে কলিঙ্গ বাসী বিষাদগ্রস্ত হয়ে পড়ে। দেবী চণ্ডীর মায়ার প্রবল ঝড়-বৃষ্টি কলিঙ্গ বাসির জীবন বিপন্ন করে তোলে। মেঘের গর্জনে বৃষ্টির সাথে তীব্র ঝড়ের হাত থেকে বাঁচতে প্রজারা ঘর ছেড়ে পালাতে শুরু করে। 7 দিন টানা বৃষ্টিতে কলিঙ্গের রাস্তাঘাট আলাদা করে চেনা যায় না। সকাল সন্ধ্যা রাত্রি আলাদা করে বোঝা যায় না। বাজ পড়া তীব্র শব্দে কেউ কারো কথা শুনতে পায় না। বিপদে পড়ে তারা জৈমিনি মুনি কে স্মরণ করে। বৃষ্টিতে গর্ত থেকে সাপ বেরিয়ে রাস্তায় বেড়ায়। ক্ষেতের ও সনজিত ফসলের পচন ধরে। শিলাবৃষ্টিতে ঘরের চাল বের করে ভাদ্রের পাকা তালের মতন বড় বড় শিলা মেঝেতে পড়ে। এইভাবে কবি মুকুন্দরাম চক্রবর্তী কলিঙ্গদেশের ঝড় বৃষ্টির প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ছবি তুলে ধরেছেন।

2. ধীবর-বৃত্তান্ত’ নাট্যাংশে রাজশ্যালকের ভূমিকা নির্দেশ করো।

উত্তরঃ-রাজশ্যালককে আমরা নাট্যাংশের প্রথমে দেখেছি। তিনি রক্ষীদের সঙ্গে ধীবর কে বিদ্রুপ করেছেন, ধীবরের পোশাক কে ঘৃণা করেছেন। আবার আমরা দায়িত্বশীল রাজকর্মচারী হিসেবেও তাকে দেখেছি। ধীবর সমর্থনের সুযোগ দিয়েছেন। প্রকৃত বিচার যাতে ধীবর পায় সেই জন্যই তার ব্যবস্থা করেছেন। রাজার নির্দেশে প্রমাণিত ধীবর কে প্রাপ্ত পারিতোষিকের অর্ধেক দান করতে দেখে রাজ শ্যালকের মনে ধিবরের সম্পর্কে গড়ে ওঠা ধারণা থেকে রাজ শ্যালক ধীবর কে বন্ধু হিসাবে গ্রহণ করলো।

পঞ্চম শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

[ninja_tables id=”4296″]

ষষ্ঠ শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

[ninja_tables id=”4401″]

সপ্তম শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

[ninja_tables id=”4403″]

3. ইলিয়াসের জীবনে কিভাবে বিপর্যয় ঘনিয়ে এসেছিল?

উত্তরঃ- লিও তলস্তয় লেখা ইলিয়াস গল্পের কেন্দ্রীয় চরিত্র হলো ইলিয়াসের। ইলিয়াসের অবস্থা প্রথম দিকে তেমন ভালো ছিল না কিন্তু ইলিয়াস প্রচুর পরিশ্রম করে রাতদিন খেটে সে বড়লোক হয়ে উঠলো। ইলিয়াস যখন বড়লোক হয়ে উঠল তখন তার ছেলেরা সব আয়েশী হয়ে পড়লো । বড় ছেলেটি মারামারি করে মারা গেলেন, আর ছোট ছেলে বাপের কথা অমান্য করায় তাড়িয়ে দেই কিছু সম্পদ সহ তাড়িয়ে দেওয়ার ফলে এবং দুর্ভিক্ষে ভেড়ার পালে মোড়ক ও কিরবিজ দের দ্বারা ভালো ঘোড়াগুলো চুরি হওয়া ইত্যাদি ঘটনাগুলো ইলিয়াসের সাম্রাজ্যে ভিত নাড়িয়ে দেয়। ইলিয়াসের অবস্থা খারাপের সঙ্গে সঙ্গে তার শরীরের জোর কমে যায় এইভাবে । 70 বছর বয়সে যখন সবই শেষ হয়ে গেল, তখন শেষ সম্বল টুকু বিক্রি করে দিতে বাধ্য হয় সে। ইলিয়াসের নিজের পশমের কোট ঘোড়ার জিন ও গৃহ পালিত পশু গুলো বিক্রি করে দেয় এইভাবে ইলিয়াসের বিপর্যয় ঘনিয়ে এসেছিল।

4. ‘দাম গল্পে সুকুমার কোন উপলব্ধিতে পৌঁছেছে ?

উত্তরঃ-দাম গল্পের কথক সুকুমারের স্কুলের ছেলেদের কাছ থেকে এক বিভীষিকা ছিলেন তাদের মাস্টারমশাই।তিনি ব্ল্যাকবোর্ডে ঝড়ের মতো যে কোন অংক করে দিতেন। মাষ্টারমশাইর হাতের প্রচন্ড চড় খেয়ে সবার মাথা ঘুরে যেত কিন্তু কাঁদবার কোন উপায় ছিল না। মাস্টারমশায়ের কাছে পুরুষ মানুষ হয়ে অংক না পারা ছিল চূড়ান্ত অপমানের ও লজ্জার। স্কুল জীবন পার হয়েও অংকের হাত থেকে এবং মাস্টারমশায়ের হাত থেকেও মুক্তি পেলে ও সুকুমারের মন থেকে সেই বিভীষিকা মুছতে সময় লেগেছিল। সুকুমারের গল্পের পত্রিকা ছাপা হলো। কর্তৃপক্ষ কোষে 10 টাকা দক্ষিণা ও দিয়ে গেল। হঠাৎ একদিন বাংলাদেশের প্রত্যন্ত একটি কলেজে বার্ষিক উৎসবে অতিথির নেমন্তন্ন পেলেন। মাস্টারমশায়ের কাছে অটোগ্রাফের খাতা অনেক এগিয়ে এলো। তার বক্তৃতা শুনে বয়স্ক প্রিন্সিপাল পর্যন্ত মুগ্ধ হয়ে গেল।সুকুমার কিন্তু খুশি হতে পারলেন না তিনি বুঝতে পারলেন তাঁর বক্তৃতার ফাঁপা মানুষ এবং মানুষের মতো মাস্টারমহাশয় খুশি হয়েছেন মাস্টারমশাই সুকুমার কে বলেন আমি তো কিছুই দিতে পারিনি তোমাদের। শুধু শাসন আর পিরন ছাড়া।সুকুমার অংক শেখানো সফল না হলেও সুকুমারের সাফল্যে আজ তিনি গর্বিত। সুকুমারকে দেখলে আবছা অন্ধকারে মাস্টারমশাই দুচোখ দিয়ে জল পরছে। তার মনে হলো স্নেহ-মমতা ক্ষমার বিরাট এক সমুদ্রের ধারে তিনি এসে পৌঁছেছেন।

5. নোঙর’ কবিতায় ‘বাণিজ্যতরী বাঁধা পড়ে থাকার তাৎপর্য বিশ্লেষণ করো।

উত্তরঃ- কবি অজিত দত্ত তার নোঙর কবিতায় আমাদের শুনিয়েছেন এক ব্যর্থ সমুদ্রযাত্রা। যে যাত্রায় বেরিয়ে তিনি ঠোটের কিনারে আটকে গেছেন। রূপকের অন্তরালে মধ্যবিত্তের গন্ডি পথ জীবন থেকে মুক্ত হবার কথা কে ব্যক্ত করেছেন। মধ্যবিত্তের আশা-আকাঙ্ক্ষা রুপি । জোয়ারের ঢেউ গুলি ফুলে-ফেঁপে উঠেছে। ভাটা শোষণে জোয়ারের উদ্দামতা যেমন। প্রাণহীন হয়ে পড়ে ঠিক তেমনই মানুষের জীবনের নানান প্রতিবন্ধকতা ও সাংসারিক চাহিদা মেটাতে গিয়ে সেও হয়ে পড়ে প্রাণীহীন। তবুও মানুষ দাড় টানে এগিয়ে যাওয়ার প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখে। যদিও তা বিদ্রুপের মতো শোনায়। আসলে একদিনে সুদূরের হাতছানি আর অন্যদিকে গণ্ডিবদ্ধতা এই দুই বৈপরীত্য বাধা মানুষের জীবন। তা কোনদিনও ছিন্ন করা মানুষের পক্ষে সম্ভব নয়। তাই কবি উদ্ধৃত মন্তব্যটি করেছেন যা অতি বাস্তব।

6. স্বরভক্তির অপর নামটি কী ?

উত্তরঃ- স্বরভক্তির অপর নাম- বিপ্রকর্ষ।

7. উপসর্গের ভূমিকা উল্লেখ করাে।

উত্তরঃ- শব্দ বা ধাতুর আগে বসে নতুন শব্দ গঠন করে।

8. উদাহরণসহ “অপিনিহিতি বিষয়টি বুঝিয়ে দাও।

উত্তরঃ- অপি কথার অর্থ আগে, নিহিত কথার অর্থ সন্নিবেশ, কোন শব্দের মধ্যে ই কার কিংবা উ কার আগে উচ্চারিত হয় তাকে অপিনিহিতি বলে।

 

পঞ্চম শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

[ninja_tables id=”4296″]

ষষ্ঠ শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

[ninja_tables id=”4401″]

সপ্তম শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

[ninja_tables id=”4403″]

অষ্টম শ্রেনীর সমস্ত বিষয়

[ninja_tables id=”4404″]

নবম শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

[ninja_tables id=”4432″]

দশম শ্রেনীর সমস্ত বিষয় 

[ninja_tables id=”4297″]

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

FansLike
FollowersFollow
0FollowersFollow
FollowersFollow
SubscribersSubscribe
- Advertisment -

Most Popular

State Wise Govt Jobs In India